চট্টগ্রাম: যুদ্ধকবলিত ইউক্রেনে বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের জাহাজ ‘বাংলার সমৃদ্ধি’-তে রকেট হামলায় নিহত মেরিন ইঞ্জিনিয়ার মো. হাদিসুর রহমানের পরিবারকে ১০ লাখ ২৭ হাজার ১৭৭ টাকা আইটিএফ এবং বিএমএমওএ সদস্যদের সহায়তা দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (২০ মে) দুপুরে বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএমওএ) কার্যালয়ে হাদিসুরের ছোট ভাই গোলাম মাওলা প্রিন্সের হাতে সহায়তা তুলে দেওয়া হয়৷

বিএমএমওএ সভাপতি ক্যাপ্টেন মো. আনাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সাধারণ সম্পাদক মো.শাখাওয়াত হোসেন।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ৩০ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করার কথা থাকলেও আমরা এখনো পর্যন্ত কোনো তদন্ত প্রতিবেদন পাইনি। দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্ত কমিটির সুষ্ঠু ও পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দেশের সংবাদ মাধ্যমসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে প্রকাশের দাবি জানাচ্ছি।

সমুদ্রগামী দেশি-বিদেশি জাহাজ ও স্থলে কর্মরত বাংলাদেশি মেরিন অফিসারদের নিয়ে গঠিত একমাত্র ইউনিয়ন বিএমএমওএ। যা ইন্টারন্যাশনাল ট্রান্সপোর্ট ওয়ার্কার্স ফেডারেশনের (আইটিএফ) অঙ্গ সংগঠন।

ক্যাপ্টেন মো. আনাম চৌধুরী বলেন, বিএসসির পক্ষ থেকে হাদিসুরের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে দেরি হচ্ছে। অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়া হোক। সরকারের এত বড় সাপোর্টের পরও বিএসসির ক্ষতিপূরণ দিতে কেন দেরি হচ্ছে? কারণ সঠিক লোককে সঠিক জায়গায় বসাতে হবে। কিছুটা সীমাবদ্ধতাও আছে। ব্যবস্থাপনায় দুর্বলতা আছে। আশাকরি সপ্তাহখানেকের মধ্যে সুরাহা হবে।

তিনি বলেন, বিএসসির জাহাজটি জাতীয় সম্পদ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞ, নিহত হাদিসুরের মরদেহ ও নাবিকদের নিরাপদে দেশে আনা সম্ভব হয়েছে।

সূত্রঃ BANGLA NEWS 24.COM

বাংলাদেশ সময়: ১২০০ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২২

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published.